Main Menu

আমার মনিরে যারা মারিছে তাগের ফাঁসি চাই... অন্তরের মায়ের আর্তনাদ

মাদক ব্যবসায় রাজী না হওয়ায় হত্যা করা হয় অন্তর শেখকে

Magura Human Chain Pic

বিশেষ প্রতিনিধি, মাগুরাবার্তা
মাদক ব্যবসায়ীদের প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় আমার ছেলেকে ওরা খুন করেছে। মা হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে এ খুনের বিচার আমি চাই। আমার মনির খুনিগের বিচারের দাবীতে আমি পথে পথে ঘুরি। আমার মনি আমারে দেখতো। ও খুন হওয়ার ৩দিন পর ওর সন্তান জন্ম হইছে। এই দুধের শিশুটিকে এখন কে দেখবে? আমাকে এখন কে দেখবে?  সন্তানহারা মা সাথি বেগমের এমনি নানা আর্তনাদে মঙ্গলবার মাগুরা শহরের প্রেসক্লাব এর সামনের ফুটপাথ প্রকম্পিত হয়।  গত ১৯ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার মাগুরার শালিখা উপজেলা দেশমুখপাড়া গ্রামের ইজিবাইক চালক অন্তর শেখ (২৬) কে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত হাসিবুল, সুজনের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে মঙ্গলবার সকালে মাগুরা প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেছে সচেতন এলাকাবাসি ও নিহতের পরিবারের সদস্যরা।
সকাল ১১টায় শহরের চৌরঙ্গীর মোড় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন নিহত অন্তরের পিতা তাইজুল মোল্যা, মা সাথী বেগম, স্ত্রী আম্বিয়া খাতুন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক শেখ সালাউদ্দিন ও সমাজসেবক আশরাফুজ্জামান হিসাম।
মানবন্ধনে বন্ধনে বক্তারা জানান- এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী সুজন ও হাসিবুলের কথামত মাদক বহনে তার ইজিবাইকটি ব্যবহার করতে রাজী না হওয়ায় ওইদিন দুপুরে অন্তকে উপজেলার হরিশপুর নুর ইসলামের বাগানে নিয়ে গলাকেটে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। পরে তার রক্তাক্ত লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয় স্থানীয়রা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে। এসময় লাশের পাশে থাকা একটি ইজিবাইক, দুইটি মোবাইল ফোন ও একটি দেশীয় ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ। বক্তারা অভিযোগ করেন-  স্থানীয় বুনাগাতি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বখতিয়ার হোসেন এ মামলার আসামী সুজন ও হাসিবুলকে নিজের  মোটর সাইকেলে চড়িয়ে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে। অথচ পুলিশ তাদের গ্রেফতার করতে অনিহা দেখাচ্ছে।
এ ব্যাপারে শালিখা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তারীকুল ইসলাম জানান- ঘটনার পর থেকে হত্যাকান্ডের কারণ উদঘাটনে পুলিশ তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে। ইতিমধ্যে আসামীদের গ্রেফতারে বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। তারা গ্রেফতার এড়াতে বিভিন্ন স্থানে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। আশাকরছি দ্রতই আসামীরা গ্রেফতার হবে।

রূপক আইচ/ মাগুরা /৭ জানুয়ারী ২০২০






Comments are Closed