Main Menu

শ্রীপুরে সরকারি সহায়তায় গৃহহীনদের দুর্যোগ সহনীয় স্বপ্নের বাড়ি

Magura Pic 2

বিশেষ প্রতিনিধি, মাগুরাবার্তা
মাগুরায় গৃহহীনদের মাঝে দুর্যোগ সহনীয় বসতবাড়ি গড়ে দিচ্ছে সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়। জেলার শ্রীপুর উপজেলার চলতি অর্থবছরের টিআর ও কাবিটা প্রকল্পের আওতায় ৮টি ইউনিয়নে ৯১টি পরিবারের জন্য ৯১টি বাসগৃহ নির্মাণ করা হয়েছে। প্রতি ঘরে ২ লাখ ৫৮ হাজার ৫০০ শত টাকা ব্যয়ে দু’রুম বিশিষ্ট থাকার ঘর, একটি রান্না ঘর, একটি টয়লেটসহ অন্যান্য সুবিধা রয়েছে বলে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে।
বৃহস্পতিবার বিকেলে মাগুরার নবাগত জেলা প্রশাসক ড. আশরাফুল আলম শ্রীপুর সদর ইউনিয়নের চরশ্রীপুর গ্রামের সুবিধাভোগি তাইজুল ইসলামের হাতে তার জন্য নির্মিত দুর্যোগ সহনীয় এ বাসগৃহের চাবি তুলে দেন। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইয়াছিন কবির, শ্রীপুর সদর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মশিয়ার রহমান, শ্রীপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি মুসাফির নজরুল, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা কোহিনুর জাহানসহ বিভিন্ন স্তরের সরকারি কর্মকর্তা, সাংবাদিক ও নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিবৃন্দ।
শ্রীপুর সদর ইউনিয়নের চরশ্রীপুর গ্রামের সুবিধাভোগি তাইজুল ইসলাম জানান, হয়ত তার জীবনে এতো সুন্দর একটি ঘরের মুখ দেখতে পেতেন না। এ জন্য তিনি সরকার ও ইউনিয়নের চেয়াম্যানের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। এতে তিনি ভীষণ খুশি।
শ্রীপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা কোহিনুর জাহান জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সরকারের  দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী চলতি অর্থবছরের টিআর, কাবিটা প্রকল্পের আওতায় উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে ৯১টি গৃহহীন পরিবারের জন্য ৯১টি বাসগৃহ নির্মাণ করা হয়েছে। প্রতি ঘরে ২ লাখ ৫৮ হাজার টাকা ব্যয় হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ইতিমধ্যেই এ প্রকল্পের উদ্বোধন করেছেন।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইয়াছিন কবির বলেন, ‘এ বাসগৃহগুলোর কাজ যাতে সুষ্ঠ ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন হয় এবং সুবিধাভোগিরা যাতে কোন প্রকার ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সে বিষয়ে সার্বক্ষণিক তদারকি করে কাজ শেষ করা হয়েছে।’
এ বিষয়ে মাগুরার জেলা প্রশাসক ড. আশরাফুল আলম জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এ উদ্যোগ সত্যিই প্রসংশনীয়। এ বাসগৃহগুলো অনেক সুন্দর হয়েছে। গৃহহীনদের কাছে এটা স্বপ্নের মতো মনে হলেও আসলে এটি এ সরকারের বাস্তবধর্মী পদক্ষেপ। এ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।

রূপক/ মাগুরা / ৮ নভেম্বর ১৯






Comments are Closed