Main Menu

পরিবারের সবাই মিলে মাদক পাচারের অভিনব কৌশল: খোঁজা হচ্ছে গডফাদার

মাগুরায় টেকনাফ থেকে পেটের ভেতরে করে আনা ইয়াবাসহ ৪ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

Magura 4 Arrest with Yaba a

 

বিশেষ প্রতিনিধি, মাগুরাবার্তা
মাগুরা পারনান্দুয়ালি শান্তিপাড়া এলাকা থেকে বিশেষ কৌশলে পেটের ভেতর লুকিয়ে আনা ৮৭০ পিস ইয়াবাসহ চার মাদক ব্যাবসায়ীকে আটক করেছে সদর থানা পুলিশ। তারা দির্ঘদিন যাবত মাদক ব্যাবসার সাথে জড়িত বলে জানা গেছে।
মাগুরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তদন্ত সাইদুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রবিবার দুপুরে পারনান্দুয়ালি শান্তিপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাদক ব্যাবসায়ী মুরসালিন বাবু (৩৫) তার স্ত্রী সোনিয়া (২৪) শ্যালক আশিক (২৬) ও শাশুড়ী মমতাজ বেগম (৪৫) সহ চার মাদক ব্যাবসায়ীকে আটক করা হয়েছে। চিহ্নিত মাদক কারবারি মুরসালিন বাবু পারনান্দুয়ালি এলাকায় শ্বশুর মৃত নজরুল ইসলামের বাড়িতে থেকে মাদক ব্যাবসা পরিচালনা করে আসছিলো। এ সময় বিশেষ কৌশলে খেয়ে পেটের ভেতর লুকিয়ে আনা ৮৭০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। তারা দির্ঘদিন ধরে কক্সবাজার, টেকনাফ এলাকা থেকে ইয়াবার চালান মাগুরায় এনে বিক্রি করে। এদের বিরুদ্ধে মাদকের একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানান তিনি। মাগুরা সদর থানার এস আই মাসুম বিল্লা জানান, ইয়াবাগুলি তারা কক্সবাজার থেকে পাতলা আঠালো টেপ মুড়িয়ে ছোট ছোট আকারে পাকস্তালিতে প্রবেশ করায়। পরে ঐ অবস্থায় মাগুরা এসে পুলিশের হাতে ধরা পড়ে। জিজ্ঞাসাবাদের এক পযায়ে পুলিশের কাছে তারা বিষয়টি স্বীকার করে। পরে পুলিশ ফলের রস পানিও খাইয়ে মলের মাধ্যমে এই ইয়াবাগুলো বের করে। ইয়াবাগুলো অনেকটা অক্ষত আবস্থায় আছে। এ মাদক চক্রের সাথে গডফাদার হিসেবে কারা জড়ীত তাদেরকে খুজে বের করার চেষ্টা করছে পুলিশ।

মাগুরা ২৫০শয্যার সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের ডাক্তার অমর প্রসাদ বলেন, পাতলা পলিথিন দিয়ে আটকে থাকার কারনে পাকস্থলিতে গিয়ে এগুলি হজম হয় না। পাকস্থলির এসিডও এর কোন ক্ষতি করতে পারে না। যার কারনে এই দ্রব্য গুলো অক্ষত থেকে যায়। তবে সেটা পাতলা পায়খানা হয়ে মলের সাথে আবার বের হয়ে আসে।

 

রূপক /মাগুরা / ৯ আগস্ট ২০২০






Comments are Closed