Main Menu

‘গাড়ির মদ্যি হাসপাতাল থাহে জীবনে এই প্রথম দেখলাম’

মাগুরায় সাড়া ফেলেছে ভ্রাম্যমান প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র

Magura disablei Medical camp pic 01

মো. আনোয়ার হোসেন শাহীন, মাগুরাবার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
‘গাড়ির মদ্যি হাসপাতাল, ডাক্তার বসে রইছে। টেস্ট করে রুগী দেহে ওষধ দিচ্ছে। গাড়ির ভিতার হাসপাতাল থাহে এমন আজব কল জীবনে দেহিনি’- কথাগুলো এক নিঃশ্বাসে বলছিলেন বৃদ্ধ প্রতিবন্ধী সুলতান শেখ (৭০)।

মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলা পরিষদ চত্বরে ভ্রাম্যমান প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্রে চিকিৎসা নিতে এসেছেন সুলতান। এই বৃদ্ধর বাড়ি উপজেলার পাচুড়িয়া গ্রামে। কেন্দ্রটি প্রতিদিন গ্রামাঞ্চলের চিকিৎসা বঞ্চিত কয়েকশ’ প্রতিবন্ধী শিশু ও নারী-পুরুষ রোগিদের আধুনিক চিকিৎসা সেবা প্রদান করছে। ইতিমধ্যে চিকিৎসা কেন্দ্রটি সাড়া ফেলেছে। চিকিৎসা নেওয়ার জন্য রোগিরা ভিড় করছেন এখানে।

চলতি মাসের প্রথম দুইদিন ও রোববার (২২ জানুয়ারী) কেন্দ্রটি সেবা প্রদান করছে। প্রতিদিন তারা প্রায় একশ জন প্রতিবন্ধী রোগিকে সেবা দিচ্ছেন। প্রতি মাসেই সদর, শ্রীপুর, মহম্মদপুর ও শাালিখা উপজেলায় পর্যায়ক্রমে কেন্দ্রটি নিয়মিত সেবা ব্যবস্থা চালু রাখবে বলে জানান আয়োজকরা।

সেবা কেন্দ্রের ক্লিনিক্যাল ফিজিওথ্যারাপিস্ট ডা.মাসুদ-উর-রহমান জানান, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন অনগ্রসর, বঞ্চিত, অসহায়, প্রতিবন্ধী, অটিস্টিক শিশুসহ নানা বয়সের নারী-পুরুষদের ফিজিও থ্যারাপিসহ বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে মাগুরা প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র।

জন্মগতভাবে কিংবা অন্য যেকোন কারণে শারীরিক ও মানসিকভাবে সমস্যাগ্রস্ত জনগোষ্ঠীর কল্যাণ, উন্নয়ন, প্রশিক্ষণ ও ক্ষমতায়নের জন্য বহুমাত্রিক সেবা প্রদান করছে। প্রতিবন্ধী এ জনগোষ্ঠীকে বিনামূল্যে ফিজিওথেরাপি ও অন্যান্য চিকিৎসা সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে ২০০৯-২০১০ অর্থ বছরে দেশের পাঁচটি জেলায় পরীক্ষামূলকভাবে প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র চালু করা হয়। এসব কেন্দ্রের সাফল্যের ভিত্তিতে ২০১৪-১৫ অর্থ বছর পর্যন্ত দেশের ৬৪টি জেলায় ১০৩টি কেন্দ্র চালু করা হয়। পর্যাক্রমে সকল উপজেলা প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র, অটিজম কর্ণার, টয় লাইব্রেরী কার্যক্রম সম্প্রসারণ করা হবে।

এসকল সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র থেকে প্রতিবন্ধী, অটিস্টিক এবং জন্মগতভাবে কিংবা অন্য যেকোন কারনে শারীরিক ও মানসিকভাবে সমস্যাগ্রস্থ ব্যাক্তিকে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে থেরাপি, ফিজিওথেরাপি, অকুপেশনাল থেরাপি, স্পিচ এন্ড ল্যাঙ্গুয়েজ থেরাপি সেবার পাশাপাশি কাউন্সেলিং, পরামর্শ, তথ্য এবং রেফারেল সেবা প্রদান করা হচ্ছে।

কার্যক্রম বাস্তবায়ন সংশ্লিষ্টগণ প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্রে কর্মরত প্রতিবন্ধী বিষয়ক কর্মকর্তা, ফিজিওথেরাপিষ্ট, অকুপেশনাল থেরাপিস্ট, প্রতিবন্ধী বিষয়ক কনসালটেন্টগণ প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সরাসারি মাঠপর্যায়ে সেবা প্রদান করছেন।

প্যাথলজি কেন্দ্রর থেরাপি ইনচার্জ রেজাউল করিম বলেন, এখানে মুখ বেকেঁ যাওয়া, আঁকা বাঁকা অঙ্গ, মেরুদন্ড বেকেঁ যাওয়া, মেরুদন্ডের ব্যথা, কোমরের ব্যথা, হাত-পা অবশ হওয়া, হাত-পা শুকিয়ে যাওয়া, হাত-পা ঝিনঝিন করা, স্ট্রোক,প্যারালিসিস ,সেরিব্রাল পলসি, বাতব্যথা, ঘাড়ের ব্যথা, হাটুর ব্যথা, আঘাতজনিত ব্যথা, ও হাড়ের ব্যথার প্রতিবন্ধী রোগি বেশি আসছেন। তাদেরকে নানা ধরনের থেরাপি, পরামর্শ, তথ্যসেবা ও বিনামূল্যে সহায়ক উপকরণ সরবরাহ করা হচ্ছে।

সদরের জাঙ্গালিয়া গ্রামের প্রতিবন্ধী বৃদ্ধ হাসেম শেখ (৬৫) জানান,‘ পিঠির হাড়ের ব্যাথায় ঘুমাতি পারতাম না। ইরা ম্যাশিন দিয়ে হিট দেছে এহন মনে হচ্ছে অর্ধেক ভালো’Magura disablei Medical camp pic 03

দীঘা ইউনিয়নের ফলসিয়া গ্রামের রিজিয়া বেগম (৬০) জানান,‘হাটুর ব্যাথায় কষ্ট পাই। চিকিৎসা করার টাকা নাই। এই জায়গায় আসে কাজ হইছে। ’
মাগুরা জেলা প্রতিবন্ধী বিষয়ক কর্মকর্তা মো.আনোয়ারুল ইসলাম জানান,‘প্রতিবন্ধী এ জনগোষ্ঠীকে বিনামূল্যে ফিজিও থেরাপি ও অন্যান্য চিকিৎসা সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে ভ্রাম্যমান সেবা কেন্দ্রের মাধ্যমে প্রতিবন্ধীদেরকে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হচ্ছে।’

শাহীন/ ২২ জানুয়ারি ১৫






Comments are Closed