Main Menu

দিক বদলেছে আম্ফান; মাঠের ধান নিয়ে কৃষি বিভাগের পরামর্শ

windy

ওয়েব ডেস্ক, মাগুরাবার্তা
উপকূলের কাছাকাছি আসতে আসতে কিছুটা দিক পরিবর্তন করেছে সুপার সাইক্লোন ‘আম্পান’। তাই শুধু বাংলাদেশ নয়, ভারতের পশ্চিমবঙ্গেও শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়টি আঘাত হানতে পারে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক সামছুদ্দীন আহমেদ মঙ্গলবার রাতে সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ঘূর্ণিঝড়টি কিছুটা দিক পরিবর্তন পরিবর্তন করলেও এর আঘাত বাংলাদেশের খুলনাসহ ভারতের পশ্চিমবঙ্গে একই সঙ্গে পড়তে পারে।  আজ বুধবার সকাল থেকে ৭ নম্বর বিপদ সংকেতের পরিবর্তে মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে হবে। এই দুটি বন্দরের আশপাশের অঞ্চলও ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে।
এর আগে  সোমবার থেকে আজ সন্ধ্যা পর্যন্ত আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাস থেকে জানা যায়, সুপার সাইক্লোন আম্পান কাল ২০ মে বিকেল বা সন্ধ্যার মধ্যে খুলনা ও চট্টগ্রামের মধ্যবর্তী অঞ্চল দিয়ে বাংলাদেশ অতিক্রম করতে পারে। তবে আবহাওয়া অধিদপ্তরের আজ রাত নয়টায় বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বুধবার সন্ধ্যার মধ্যে সুন্দরবনের কাছ দিয়ে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশ উপকূল অতিক্রম করতে পারে।

এ ব্যাপারে মাগুরা সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু তালহা জানান-  ঘুর্ণিঝড়টি দিক পরিবর্তন করেছে। ফলে মাগুরাসহ এ অঞ্চলে ভারি বর্ষণের সম্ভবনা রয়েছে। তবে আশার কথা আমাদের অঞ্চলের বেশীরভাগ ধানই কাটা সম্পন্ন হয়েছে। ফলে কৃষকের ক্ষতির সম্ভবনা কম।  এর মধ্যে যাদের কাটা ধান মাঠে আছে যথাসম্ভব বাড়িতে তুলতে হবে। নিতান্ত সম্ভব না হলে কাটা ধান স্তুপ করে মাঠের মধ্যে আনুপাতিক উচু স্থানে পলিথিন দিয়ে ঢেকে রাখুন। এছাড়া এখনও কাটা হয়নি এমন ধান গাছের গোড়ায় যেন পানি জমে যেতে না পারে সেদিকে নজর রাখতে কৃষকদের প্রতি অনুরোধ জানান তিনি।

রূপক/মাগুরা/ ২০মে ২০২০






Comments are Closed